শাকিবকে নিয়ে আবারও বোমা ফাটালেন অপু

তালাকের পর নায়ক শাকিব খান তার ছেলের কোনো দায়িত্ব নেয়নি, এমনকি তার কোনো খরচও দেন না বলে অভিযোগ করেছেন অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস।

শুধু তাই নয়, ছেলে আব্রাহাম খান জয়কে যে ১০ লাখ টাকা দেয়ার কথা গণমাধ্যমকে শাকিব বলেছেন সে বিষয়টিরও নতুন করে ব্যাখ্যা দিয়েছেন অপু বিশ্বাস। সম্প্রতি এক তারকা আড্ডার একটি অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন ঢালিউড কুইন।

অনুষ্ঠানে সুপারস্টার শাকিবের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর ছেলের দায়িত্ব তারা কীভাবে ভাগাভাগি করছেন- জানতে চাইলে অপু বিশ্বাস বলেন, ‌‘ভাগাভাগির কিছু নেই। সব দায়িত্বই আমাকে পালন করতে হচ্ছে।’

‘এমনকি ছেলের সবরকম খরচও আমাকেই দিতে হচ্ছে। শাকিব আসলে ছেলের জন্য কোনো খরচ কখনোই দেয়নি। ওর কাছ থেকে একটা প্রয়োজনে আমি ১০ লাখ টাকা নিয়েছিলাম। তখন আমাদের সম্পর্ক ভালো ছিল। স্বামী-স্ত্রী আমরা।’

‘পরে যখন জয় এলো তখন শাকিব ওই ১০ লাখ টাকা ছেলের খরচ হিসেবে দিয়েছে বলে দাবি করে সে। মানে সে বলে যে আমার আর তাকে ওই টাকাটা ফেরত দিতে হবে না। এটা সে ছেলের জন্য দিয়েছে। এই দেয়াটাকেই সবাই প্রচার করেছে যে ছেলে-বউয়ের খরচ দিচ্ছে শাকিব। আমিও কিছু বলিনি। কারণ টাকাটা ও আমার কাছে পায়। কিন্তু সত্যটা হলো, ছেলে জন্মের পর ওর জন্য এক টাকাও সে নগদ দেয়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘জয় জন্মের পর থেকেই আমাকে অনেক সংগ্রামের মুখে পড়তে হয়েছে। সাংবাদিক ও আমার পরিবার আমাকে মানসিক সমর্থনটা দিয়েছে ঠিকই। কিন্তু আর্থিক সাপোর্টটা আমি কোথাও থেকে পাইনি। নিজেকে জোগাড় করতে হয়েছে নানারকম বিজ্ঞাপন, সিনেমা ও শো থেকে।’

অপু বলেন, ‘ছেলের জন্য আমি সব করতে পারি। ওকে তো মানুষ করতে হবে। স্বামীর অনিচ্ছায় আমি ছেলেকে পৃথিবীর মুখ দেখিয়েছি। ওর জন্য নিরাপদ জীবনের ব্যবস্থা আমাকেই করতে হবে। শাকিব মাসে-বছরে একদিন একটা গিফট দেয়, হঠাৎ একদিন দেখা করতে আসে আর সেগুলো দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করে। কিন্তু আমার দায়িত্ব প্রতিদিনের।’

প্রসঙ্গত, ভালোবেসে ২০০৮ সালে বিয়ে করেছিলেন শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। লোকচক্ষুর আড়ালে সেই সংসার টিকে ছিল ১০ বছর। বহু ঘটনা ও নাটকের জন্ম দিয়ে ২০১৮ সালে বিচ্ছেদ হয় তাদের। বাবা-মায়ের বিচ্ছেদের পর একমাত্র সন্তান তার মায়ের সঙ্গেই থাকছে।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *