মানবিক কারণে খালেদা জিয়ার জামিন দেয়ার অনুরোধ

মানবিক দিক বিবেচনায় নিয়ে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন দেয়ার অনুরোধ করেছেন তার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন।

বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) সকাল ১০টা দিকে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন ছয় সদস্যের আপিল বিভাগে খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি শুরু হয়।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দু’র্নীতি মা’মলায় দ’ণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানিতে তার আইনজীবী আরো বলেন, তারা মানবিক কারণে খালেদা জিয়ার জামিন চাইছেন। তার অবস্থা দিন দিন খা’রাপ হচ্ছে। তিনি পঙ্গু অবস্থায় চলে গেছেন। হয়তো ছয় মাস পর তার অবস্থা আরও খা’রাপ হবে।

শুরুতে আ’দালতের কাছে খালেদা জিয়ার সবশেষ স্বাস্থ্যগত অবস্থা স’ম্পর্কিত মেডিকেল বোর্ডের প্রতিবেদন জমা দেন সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল আলী আকবর। এরপর অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদীনকে বিএসএমএমইউর দেয়া স্বাস্থ্যগত প্রতিবেদন পড়তে দেওয়া হয়।

প্রথমে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম মেডিকেল বোর্ডের প্রতিবেদন নিয়ে কথা বলেন। পরে খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বক্তব্য দেন।

জয়নুল আবেদীন বলেন, এই আ’দালত দেশের সর্বোচ্চ আ’দালত। এই আ’দালতের প্রতি আমাদের পূর্ণ আস্থা আছে। আম’রা মানবিক কারণে খালেদা জিয়ার জামিন চাইছি। খালেদা জিয়া আ’দালতে গেলেন হাঁটতে-হাঁটতে। একজন সুস্থ মানুষ ছিলেন। কিন্তু আম’রা দেখলাম তার অবস্থা দিন দিন খা’রাপ হচ্ছে।

আ’দালত তখন জয়নুল আবেদীনকে মেডিকেল প্রতিবেদন পড়ে শোনাতে বলেন।

জয়নুল আবেদীন আ’দালতকে বলেন, আমি ডাক্তার না। তবু যেটুকু বুঝি, এই মেডিকেল প্রতিবেদন বলছে, খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসা দরকার। মানবিক কারণে আম’রা খালেদা জিয়ার জামিন চাচ্ছি। তার অবস্থা এমন যে তিনি পঙ্গু অবস্থায় চলে গেছেন। হয়তো ছয় মাস পর তাঁর অবস্থা আরও খা’রাপ হবে। আর কোথাও গিয়ে লাভ নেই। এ জন্য আম’রা বারবারই আ’দালতের কাছে আসছি, বলছি, মানবিক কারণে খালেদা জিয়াকে জামিন দেয়া হোক।

বেলা ১১টার পর আ’দালত বিরতিতে যান। বিরতির পর আবার শুনানি গ্রহণ শুরু করে আ’দালত।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *